“কবিতা”-“Kobita”

বিষন্ন মন।

অকাশ টা মেঘলা এখন,
যেন আমার বিষন্ন মন।
হয়তো মেঘ নামবে এখনই,
তাই তো তুমি আমাকে কথা দিয়ে রাখোনি।
প্রশ্ন জাগে মনে কত শত,
সব মানুষ কি তোমার মত? হায়রে আমার বিষন্ন মন,
আমি বেঁচে থাকবো কত ক্ষণ?

যদি না পায় তোমারে এ জীবন সংসারে,
কি হবে আমার ভবোঘুরে জীবনে!
তোমার প্রতি নেই কোন ক্ষোভ,
নিরবে কাঁদবো জানাবো না কোন বিক্ষোভ।
২২/০৬/২০১৬
নারায়ণগঞ্জ,

—————————

বিরহের দিন।

ভালোবাসা এক তরফা হয় না,
সে কি তুমি জানো না?

আর কত কাল একা থাকবো,
আর কত রাত একা জাগবো?

বিরহে দিন কাটে একা একা,
চারি দিকে শুধু লাগে ফাঁকা ফাঁকা।

তোমাকে ভেবে দিন যায় চলে,
এই শ্রাবণ ধারা বর্ষার জলে।

তুমি ফিরে এসো আমার কাছে,
আমি পথ চেয়ে বসে আছি তোমার তরে।

শাহীন
না.গঞ্জ।
তাং:- ২২/০৭/২০১৬ ইং

——————————–

মুসাফির

আমি পথিক পরবাসী,
দেশ বিদেশ ঘুরতে ভালোবাসি।

মজা করি মাঝে মধ্যে,
আবার মন খারাপ তারমধ্য।

কখন যে মেঘ, কখন যে বৃষ্টি,
সেটা বুঝবার মন বিধাতা করেনি গো মোর সৃষ্টি।

তাই তো ঘুরে বেড়াই আমি ভীন মুসাফিরের দেশে দেশে,
কবে যে আমার লাগে ভিসার দিন শেষে মেশে!

চলছে মুসাফির ,চলছে কবি
তার সাথে আমার চলন ছবি।

হারিয়ে বা যাবো কোথায়?
আমাকে তোরা খুঁজে পাবি সেথায়।

যেথায় আমি ঘুরি-ফিরি চলন-বলন,
আমায় পাবি সেথায় গো, ওরে মোর লালন।

আমি ই সেই মুসাফির, আমি ই সেই মুসাফির,

শাহীন
নারায়ণগঞ্জ
তাং:-২৪/০৭/২০১৬ইং

————————

গরীবের গল্প,

গরীব বলে দিন-রাত কাটে ক্ষুদার যন্ত্রণায়,
রাত কাটে ফুটপাতে,রাস্তায়,গলির কোণায়।

আমাকে সমাজের উচ্চশ্রেণী দেয় না সম্মান,
মানুষের বিবেক কি এত ছোট, আল্লাহ মহান?

টাকা-পয়সা,অর্থ-কড়ি নেই বলে পাইনা ভালোবাসা,
সমাজপতি, রাষ্ট নায়ক, সবাই কি জানে সে কথা?

মুখে সবার গাল গল্প, অন্তরে লুখিয়ে আছে বিষ,
এই সত্য বাক্যটি বলেছে বন্ধু শুভাশিষ।

ধনীর দুলাল-দুলালী সব রেস্তোরাতে খায়,
আমারও তাদের মতো খেতে মনটা বড় চায়।

বিধাতার বিচার বুঝা বড় দায়,
দু’মুটা ভাত হলে সেটাই আমি খায়।

আমার দুঃখ, ব্যথা দেখার মানুষ দুনিয়াতে খুজি,
ভোটের সময় আমরা নাকি এমপি-মন্ত্রীদের বড় পুঁজি! 😦

আমরা কারও পুঁজি কিংবা বোঝা হতে চায় না,
আমার ন্যায্য আমাকে দিলে আমার কিছু চাই না।

বড় বেশি পাপি বলে রাতে রাস্তায় ঠাঁই,
আমার যদি হয় গো মরণ কবর টা দিও ভাই।

শাহীন
না.গঞ্জ।
তাং:-২৫/০৭/২০১৬ইং


সখি পেলাম না তবু দেখা।

এসেছিলাম সখি তোমার কুঞ্জবাগানে,
কোথায় থাকো সখি এখানে?
কত রুপসী চোখের সামনে ঘোরে,
তোমার মত কাউকে পেলাম না ওই মোড়ে।
তুমি হয় তো ঘুমিয়ে ছিলে ততক্ষণ,
আমি দাঁড়িয়ে ছিলাম যতক্ষণ।
অবশেষে সখি হলো আমার ঘরে ফেরা,
তবুও পাইনি তোমার এক পলক দেখা।
সখি পেলাম না তবু দেখা।

Md Shahin Akter.

এম.এম কলেজ,যশোর।
তাং:-৬/১১/২০১৬ইং
রবিবার।


||।।চলে এসো।।||

অনেক ছিলো গো বলার,
হয়নি সময় তখন সামনে আসার!
পড়বে যখন মনে তার….?
তখন থাকব না আর…..!
সে কি ভাবে একটু খানি মোরে?
আমি আসবো না আর তার দোরে!
দুর থেকে বহু দুরে, যাবো আমি চলে,
যখন পড়বে মনে, চলে এসো না বলে!
আমি দাঁড়িয়ে থাকবো তোমার অপেক্ষা,
পেয়ে আপনজন করো না আমাকে উপেক্ষা।
মানতে চায় না মন,এটাই নিয়ম,এটা নিয়তী,
দেখবে না কেউ এখন আমার এই আকুতী!

Md Shahin Akter
২৭/১১/২০১৬ইং
নিজ বাড়ি

 

(বি:দ্র:-গদ্য ভাষা দিয়ে কি আর পদ্য লেখা যায়?
তারপরও গদ্যাংশের কিছু পদ্যছন্দ করে
দু-চার লাইন লিখলাম।)

মেয়ে আমি পরদেশি।
Md Shahin Akter

মেয়ে আমি পরদেশি,
আর তুমি ভীনদেশি,
আমি বুঝি না তোমার ভাষা,
তুমিও বুঝো না আমার ভাষা।
অন্তরের এক আত্ত্বা থাকে সেখানে কেউ নাই,
দখল করতে চাইলে দিবো না তোমাকে ফাউ।
উপরের চেয়ারা দেখে মানুষ চেনা দায়,
মনের ভিতর ডুকতে গেলে পারমিশন চায়!
গায়ের রঙে মানুষ হয় না ভালো-মন্দ,
কবিতাতে নেই আমার কোন ছন্দ।
মানুষ চিনতে লাগে মন,
সেই মনটা বড়ই প্রয়োজন।
আছে নাকি তোমার?
থাকলে চলে এসো আমার আঙ্গিনায়।
বুঝাপড়া করবো দু’জনায়।
সখী আসবে আঙ্গিনায়?

পুচং পারমা,মালায়েশিয়া।
তারিখ:-৬/২/২০১৭ইং

 

(উৎসর্গ:- 💜 মহান শ্রমিক দিবসে, সকল শ্রেণী-পেশার শ্রমিকদের জন্য আজকের এই কবিতা।)

মে দিবস।
Md Shahin Akter


মে-দিবস আসে যায়,
শ্রমিকের দাবি রয়ে যায়।

আমরা শ্রমিক গড়ি অন্যের ভাগ্য,
থেমে থাকে আমাদের আছে যত বেদনার কাব্য।

ইট-পাথরের তলে চাঁপা পড়ে মোদের স্বপ্ন,
কেন এত দুখের দহনে বেদনার করুন ভগ্ন?

আমি শ্রমিক,আমি কর্মী, আমি দেশের নাগরিক,
যার জন্য দেশ বরাদ্দ দিলো পাইলো না সেই সৈনিক!

কেন এত বৈষম্য, কেন এত অবহেলা?
ন্যায্য মুজুরি পেতে অপেক্ষা কতবেলা?

শ্রমিকের রক্তে গড়া বড় লোকের দালান,
মাঝে মাঝে শ্রমিকের লাঠি দিয়ে কেন তাদের তাড়ান?

কখনো মরে পুলিশের জলকামানে,
কখনো মরে দালান চাঁপা পড়ে,
শ্রমিক দিবস আসলে কেন বেদনার সুর এত বাড়ে?

চাই আমাদের ন্যায্য সব অধিকার,
সকল শ্রমিকের মে দিবসে এটাই দাবিদার।

Sungai Buloh,Malaysia
তারিখ:-1-5-2017
#কবিতাশাহীনের।
#প্রবাস
ডায়েরি।

 

(মে মাসের দ্বিতীয় রবিবার বিশ্ব মা দিবস,সকল দিবসের মত এটাও সারা বিশ্বে পালন করে আমরাও(বাংঙালিরা) পালন করি।তবে প্রতিটি ক্ষণ ভালোবাসি মা তোমাকে।সকল মা কে উৎসর্গ করলাম আজকে এই মা দিবসে আমার লেখা কবিতা। )

মা
Md Shahin Akter

মা বলে ডাকি যখন মা’কে,
মা তখন শতব্যস্তে থাকে;
তারপরও মা বলে ডাক শুনলে,
মা বলে,কি বলবি বল বাপ ধনরে?

মা এর এমন ধ্বনি শুনলে,
মনে হয় আমি স্বর্গে আছি মা এর আঁচলে;
মা যেনো চিরকাল বেঁচে থাকে সবার,
এমন দোয়া আল্লাহর কাছে করি লক্ষবার।

দশ মাস দশ দিন মা জননী করিল গর্ভে ধারণ,
পৃথিবীতে মা এর মত আছে কি কোন উদাহরণ?
মা যার নেই বেঁচে পৃথিবীতে,
সে নাকি গরীব বলেছে মহা পুরুষ তাদের বাণীতে!

মা থাকতে করলে না যারা মাকে সম্মান,
তাদেরও একদিন না একদিন হতে হবে অপমান;
তুমিও হবে একদিন মা,
তখন বুঝবে মা হওয়ার জ্বালা কত টা!

মা,মা গো, তোমাকে ভালোবাসি অনেক,
এই কথাটি বিশ্বাস করো না একটু ক্ষনেক;
শত ব্যস্ততার মাঝে খোঁজ নিবে আমার মা,
পৃথিবীতে এসে করেছি জীবনে যত যা,সবই তোমার অবদান মা।

ও মা,সবই তোমার আশীর্বাদ মা,
সবই তোমার কল্যাণ মা গো মা;
আমাকে তোমার পায়ের নিচে দিও একটু ঠায়,
আমি যে তোমার মাঝে বেহেশত খুঁজে পায়।

তারিখ:-১৪/৫/২০১৭ইং
Sg,Buloh,Malaysia
Mother’s Day

#কবিতাশাহীনের।
#প্রবাস
ডায়েরি।
#মা_দিবস।

(বাবা দিবসে পৃথিবীর সকল বাবাকে সম্মান ও শ্রদ্ধা জানাই।তাদের উৎসর্গ করে আজকের এই কবিতা।যাদের বাবা বেঁচে নেই তাদের জন্য দোয়া রহিল।)

বাবা তোমায় স্মরণ করি।
Md Shahin Akter.
——–++++———

ছোট বেলা থেকে বাবা তোমায় কাঁধে চড়ি,
সকল সময় বাবা তোমায় স্মরণ করি।
সন্তানের জন্য বাবা করতে অভাব লুকোচুরি,
আজ বড় হয়ে বাবা তোমায় স্মরণ করি।
সংসার চালাতে গিয়ে মাকে দিতে ঝাড়ি-ঝুড়ি,
সেটা নিতো মেনে মা,বাবা তোমায় স্মরণ করি।
বাবা তুমি বটবৃক্ষ, সন্তানের ভবিষাৎ এর তরি,
সব বয়সে তাই তো বাবা তোমায় স্মরণ করি।
পৃথিবীর সকল বাবার শ্রদ্ধা করি প্রাণ ভরি,
প্রবাসে এসে বাবা তোমায় স্মরণ করি।
অসুখ হলে খরচ করেছো অনেক টাকা-কড়ি,
তোমার ঋণ শোধ হবার নয়,বাবা তোমায় স্মরণ করি।
শেষ জীবন পর্যন্ত তোমায় যেন সেবা করতে পারি,
হৃদয়ের মাঝে আছো তুমি,বাবা তোমায় স্মরণ করি।

তারিখ:-১৮/৬/২০১৭ইং
#বিশ্ববাবাদিবস।
#কবিতাশাহীনের।
#প্রবাস
ডায়েরি।

 

 

 

Powered By :- Md.Shahin Akter

Advertisements

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out /  Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out /  Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out /  Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out /  Change )

Connecting to %s